বিশ্বকাপ ক্রিকেট ইতিহাসে ব্যার্থ ১০ ক্রিকেটার

বিশ্বকাপ ক্রিকেট ইতিহাসে ব্যার্থ ১০ ক্রিকেটার

বর্তমান পৃথিবীর সবচেয়ে বড় আসল হলো বিশ্বকাপ ক্রিকেট আসর। এখানে প্রায় সকল দেশই অংশগ্রহন করে থাকে। পৃথিবীর অন্যতম একটি আসর এই বিশ্বকাপ আসর। একানে নানা রকমের ঘটনা ঘটে থাকে।

বিশ্বকাপ ক্রিকেট
বিশ্বকাপে ব্যর্থ মিশন এবং দশটি প্রশ্ন

 

বিশ্বকাপ ক্রিকেট ইতিহাসে ব্যার্থ ১০ ক্রিকেটার।। Top 10 loser Cricketer in world cup History নিয়ে দেওয়া হবে আজকের আর্টিকেলটি। আশা করবো তথ্যবহুল হবে আজকের আর্টিকেলটি।

 

ব্যার্থ ১০ ক্রিকেটারের ভিডিও 

ভিডিও থাকার কারণে অনেক কিছুই এখন অনেক সহজেই দেখতে পাওয়া যায়। আসলে আমরা ডকুমেন্টসগুলোর চাইতে ভিডিও লিংকগুলোতে বেশি বিশ্বস্ত ও বেশি আকর্ষন অনুভব করে থাকি।

ভিডিওটি দেখার জন্য = ক্লিক করুন এখানে

 

ক্রিকেট বিশ্বকাপে ব্যার্থ ক্রিকেটারদের তালিকা সমূহ 

বিশ্বকাপে সবাই যে ভালো পারফমেন্স করবে বিষয়টা এমন নয়। অনেক বাঘা বাঘা প্লেয়াররাও অনেক সময় ভালো পারফমেন্স করতে পারেন না বিশ্বকাপের মত বড় আসরে। আর এমনটই কিছু প্লেয়ার আছেন তাদের লিস্ট এখানে দেওয়া হলো।

১. মিস-বা-উল হক বা Misbah-ul-Haq

২. হাসান আলী বা Hasan Ali

৩. ডেল স্টেইন বা Dale Teyn

৪. বেন স্টোক বা Ben Stoke

৫. জুবরাজ সিং বা Yuvraj Singh

৬. সাইদ আজমল বা Saeed Ajmal

৭. মার্টিন গাবটিল বা Martin Gaptill

নিচের এই ক্রিকেটারদের বিস্তারিত তথ্য দেওয়ার চেষ্টা করছি আমি।

 

১. মিস-বা-উল হক বা Misbah-ul-Haq

মিস-বা-উল হক বা Misbah-ul-Haq ছিলেন পাকিস্তানের অন্যতম একটি ক্রিকেটার। তিনি ও তার ব্যাটিং নিয়ে কোন সমস্যা কারোরই চোখে ধরা পড়ে নাই। তিনি অসাধারণত একজন ক্রিকেটার ছিলেন পাকিস্তানের ইতিহাসে। অনেকেই বলে থাকেন পাকিস্তানের দুইটা বিশ্বকাপ তার কারণে। হাতছাড়া হয়েছে।

ক্রিকেট বিশ্বকাপ
মিসবাহ-উল-হক খান নিয়াজী (উর্দু: مصباح الحق خان نیازی‎‎; জন্ম: ২৮ মে, ১৯৭৪) পাঞ্জাবে জন্মগ্রহণকারী পাকিস্তানের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার। টেস্ট ক্রিকেট এবং একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পাকিস্তান জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক। মধ্যমসারির ব্যাটসম্যানরূপে খেলতেই তিনি অধিক পছন্দ ও স্বাচ্ছ্যন্দবোধ করেন।

২০১১ বিশ্বকাপে ভারতের সাথে সেমিফাইল খেলেছিল পাকিস্তান দলটি। সেই সময় ভারত দলটি ২৬০/৯ মানে ৫০ ওভারে ২৬০ রান করেছিল। এই ম্যাচে শচীন টেনডুলকারের ক্যাচ মিস করেছিলেন সেদিন সেই মিস-বা-উল হক বা Misbah-ul-Haq. যার কারণে শচীন টেনডুলকার সেদিন ৮৫ রানের ঝকঝকে ইনিংস খেলেছিলেন।

ক্রিকেট বিশ্বকাপ
Misbah-ul-Haq Khan Niazi is a former Pakistani cricket coach and former international cricketer. Misbah captained Pakistan in Test cricket and One Day Internationals and is former head coach and former chief selector of the Pakistan national team.

২৬১ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে ২৩১ রানেই অল আউট হয়ে যায় সেদিন পাকিস্তান। সেদিন মিস-বা-উল হক বা Misbah-ul-Haq করেছিলেন ৭৬ বল খেলে মাত্র ৫৬ রান। বিশ্বকাপ ক্রিকেট ইতিহাসের পাতায় তিনি অনেক দিন পর্যন্ত ব্যার্থ ক্রিকেটারদের তালিকায় থাকবেন।

 

২. হাসান আলী বা Hasan Ali 

২০২১ সালের টি-২০ বিশ্বকাপের ম্যাচের দৃষ্টটি পাকিস্তানের সমর্থকদের কাছে চির স্মরনীয় হয়ে থাকবে। সেমিফাইনাল ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার সাথে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে পাকিস্তান ২০ ওভারে ১৭৬ রান সংগ্রহ করে। জবাবে অস্ট্রেলিয়া চাপের মধ্যে দিয়ে যাওয়ার পরেও জিতে যায় এই হাসান আলী বা Hasan Ali কারনেই বলা যায়।

ক্রিকেট বিশ্বকাপ
হাসান আলী (জন্ম: ৭ ফেব্রুয়ারি, ১৯৯৪) মান্দি বাহাউদ্দিন এলাকায় জন্মগ্রহণকারী প্রথিতযশা পাকিস্তানি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার। পাকিস্তান ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য তিনি। দলে তিনি মূলতঃ ফাস্ট বোলার হিসেবে খেলছেন। সাধারণ বোলিং ভঙ্গীমায় বলের বৈচিত্রতা আনয়ণে সবিশেষ পারদর্শী তিনি।[১] ডানহাতে মিডিয়াম-ফাস্ট বোলিং করার পাশাপাশি নিচেরসারিতে ডানহাতে ব্যাটিং করে থাকেন। ঘরোয়া ক্রিকেটে পেশাওয়ার জালমি’র প্রতিনিধিত্ব করছেন তিনি।
১৯ তম ওভারে তিনি একটি ক্যাচ মিস করেন এবং তারপর পরপর তিনটি ৬ মেরে অস্ট্রেলিয়া জিতে যায়। তার ক্যাচ যদি মিস না হতো তাহলে হয়তো সেদিন পাকিস্তান জিততো। তবে এই ঘটনাটি ছাড়াও এই হাসান আলী বা Hasan Ali আলী মাত্র চার ওভার বল করে রান দিয়েছেন সেদিন ৪৪টি।

ক্রিকেট বিশ্বকাপ
Hasan Ali is a Pakistani cricketer. He made his first-class debut for Sialkot in October 2013. He made his international debut for Pakistan in August 2016 in a One Day International match. The following summer, he was named in Pakistan’s squad for the 2017 ICC Champions Trophy.

আসলে পাকিস্তানের ইতিহাসে তিনিও ভিলেন হয়েই থাকবেন বলে অনেকেই মনে করেন। তবে এই বিশ্বকাপে পাকিস্তান অনেক ভালো পারফমেন্স করেছে বলা যায়। বিশ্বকাপ ক্রিকেট ইতিহাসের পাতায় তিনি অনেক দিন ব্যার্থ ক্রিকেটারদের তালিকায় থাকবেন বলে মনে হয়।

 

৩. ডেল স্টেইন বা Dale Teyn

২০১৪ সালে সাউথ আফ্রিকা বনাম নিউজিল্যান্ড ম্যাচের কথা হয়তো সবারই মনে আছে। সেই ম্যাচে নিউজিল্যান্ড এর জন্য DL ম্যাথোড অনুসারে ২৯৮ রানের টারগেট দেওয়া হয় মাত্র ৪৩ ওভাবে। সেই ম্যাচে শেষ অভারে দরকার ছিল সাউথ আফ্রিকার জন্য ১১ রান আর বলার ছিলেন ডেল স্টেইন বা Dale Teyn.

সেই ম্যাচে ১ বল হাতে রেখেই নিউজিল্যান্ড জিতে যায়। আর এই ম্যাচের পর এবিডিলিয়াস, হাশিম আমলা সহ আরও কয়েকজন বড় বড় ব্যাটিং ক্রিকেট ইতিহাসকে বিদায় জানান।

 

শেষ করা আটিকেল সম্পর্কে

আর্টিকেলটি মূলত ২০২১ সালের টি-২০ বিশ্বকাপকে কেন্দ্র করে করা হয়েছে। তবে এখানে পুরো বিশ্বকাপ জুড়েই সবচেয়ে ভালো এর চাইতে ব্যার্থ যেসব ক্রিকেটার ছিল তাদের আলোচনা করা হয়েছে। এখানে তাদের প্রতি দেশের অনেক বেশি প্রত্যাশা ছিল তারপরেও তারা দর্শকদের সেই প্রত্যাশা পূরণ করতে পারে নাই।

Leave a Comment